প্রশ্নোত্তরঃ ইসলামের সহজ পরিচয়

১. ইসলাম শব্দের অর্থ কি?

উত্তর ঃ ইসলাম অর্থ আত্মসমর্পণ করা, মেনে নেয়া, মাথা পেতে নেওয়া, নিজের ইচ্ছাকে পরিত্যাগ করা।

 ২. দ্বীন ও ধর্মের পার্থক্য কি বুঝ?

উত্তর ঃদ্বীন মানে জীবন বিধান আর ধর্ম মানে ধর্মীয় বিষয় সম্বলিত একটি সংস্কৃতি যা কতিপয় ধর্মের বিধানের মাঝে সীমাবদ্ধ।

৩.দুনিয়াতে মুসলমানদের আল্লাহ কি দায়িত্ব দিয়ে সৃষ্টি করেছেনএই দায়িত্ব পালন না করলে তা কার অনুসরণ করা হবে?

উত্তর ঃ আল্লাহর খলিফার দায়িত্ব দিয়ে। এ দায়িত্ব পালন না করলে শয়তানের অনুসরণ করা হবে।

৪. নফস ও রূহ কি?

উত্তর ঃ নফস হলো দেহের দাবী আর রূহ হলো বিবেক, যা আসল মানুষ।

৫. নফস ও রূহ এর সংঘর্ষে মানুষের নফসের যে তিন অবস্থা কুরআনে বর্ণিত হয়েছে সেগুলো কি কি?

উত্তর ঃ ১. সব সময় নফস জয়ী হয়-রূহ হেরে যায়। ২. রূহ জিতে যায়-নফস হেরে যায়।  ৩. রূহ সব সময়ই জিতে যায়।

৬. নামাযের আসল উদ্দেশ্য কি?

উত্তর ঃ নামাযের মাধ্যমে কালেমার ওয়াদা পালনের অভ্যাস তৈরী হয়। আর নামাযের বাহিরে আল্লাহর হুকুম আর রাসূলের তারিকা মতে চলার অভ্যাস তৈরী হয়।

৭. প্রাকৃতিক জীবনে কোন অনিয়ম নেই কেন?

উত্তর ঃ প্রকৃতি নিজের ইচ্ছে মতো চলেনা বলে।

৮. মুহাম্মদ সা. এর সাথে মুমিনদের সম্পর্ক কি?

উত্তর ঃ মুহাম্মদ সা. সকল মুমিনের নেতা। তিনিই একমাত্র অনুসরণীয় আদর্শ।

৯. ইসলামে বৈরাগ্যবাদ কেন নিষিদ্ধ?

উত্তর ঃ আল্লাহ মানুষকে শ্রেষ্ট করে সৃষ্টি করেছেন, বাকী সবকিছু মানুষের ব্যবহারের জন্য সৃষ্টি। এই ব্যবহারের ক্ষেত্রে মানুষের জন্য পরীক্ষা রয়েছে। বৈরাগী আল্লাহর নিয়ামত গুলো ব্যবহার করে না, পরীক্ষায় অংশ নেয়না-তাই ইসলামে বৈরাগ্যবাদ নিষিদ্ধ।

১০. কুরআনের একটি সূরায় ৮টি জিনিসের ভালবাসা অন্য ৩টি জিনিসের চেয়ে যদি বেশি হয়, তাহলে দূর্বল ঈমান বলে পরিগনিত হবে। ৩টি জিনিস কি কি?

উত্তর ঃ আল্লাহর প্রতি ভালবাসা, রাসূলের প্রতি ভালবাসা এবং আল্লাহর পথে জিহাদের প্রতি ভালবাসা।

১১. ইবাদত কাকে বলে? দ্বীনদারী ও দুনিয়াদারী বলতে কি বুঝ?

উত্তর ঃ আল্লাহর হুকুম ও রাসূলের আদর্শ মতে সব কাজ করাই ইবাদত। ইসলামে দ্বীনদারী ও দুনিয়াদারী আলাদা কোন বিষয় নয়। জীবনের সকল কাজ আল্লাহর হুকুম আর রাসূলের তরীকা মতে করার নাম দ্বীনদারী আর বিপরীত করার নাম দুনিয়াদারী।

১২. মোহরানা কত ধার্য্য হবে? এ বিষয়ে শরীয়াতের বিধান কি?

উত্তর ঃ কনের মাতা, খালা, বোন ও অন্যান্য আত্মীয়ের যে পরিমাণ মোহরানা ধার্য্য হয়েছে, সে অনুপাতে মোহরানা ধার্য্য হবে।

১৩. কুরআন ও হাদীসের মধ্যে পার্থক্য কি।

উত্তর ঃ কুরআনের ভাষা ও ভাব সবটুকু আল্লাহর। হাদীসের ভাষা রাসূলের, ভাব আল্লাহর।

১৪. হাদীস কত প্রকার ও কি কি?

উত্তর ঃ হাদীস তিন প্রকার। ১. কাওলী। ২. ফেলী। ৩. তাকরীরি।

১৫. কুরআনে স্বামী স্ত্রীকে একে অপরের কি বলা হয়েছে?

উত্তর ঃ পোষাক।

১৬. ইসলামী সরকারের ৪দফা কর্মসূচী কি কি?

উত্তর ঃ ১. নামায কায়েম করা। ২. যাকাত আদায় করা। ৩. সৎ কাজের আদেশ দেয়া। ৪. অসৎ কাজের নিষেধ করা।

১৭. রাষ্ট্র পরিচালনার জন্য ইসলাম প্রদত্ত মূলনীতি গুলোর যে কোন ২টি বলুন?

উত্তর ঃ ১. আল্লাহর আদেশ নিষেধ মেনে চলা। ২. রাসূল সা. যে নিয়মে শাসন করেছেন সে নিয়মেই সরকারকে সকল দায়িত্ব পালন করা। ৩. সরকার কর্তৃক যে আদেশ জারি হয় তা মান্য করা। ৪. কুরআন সুন্নাহর ভিত্তিতে অন্যের মতামতের মূল্য দেয়া। ৫. বিচার ব্যবস্থা জারি থাকা। ৬. মূল শাসক মুসলমানদের মধ্য থেকে হওয়া।

১৮.  মজলিসে সূরা বলতে কি বুঝ?

উত্তর ঃযে সব ভাইদের সাথে পরামর্শ করা হবে, তাদেরকে এক সাথে মজলিসে শুরা বলা হয়।

১৯. সংস্কৃতি কাকে বলে?

উত্তর ঃ প্রতিটি দেশ প্রতিটি ধর্ম প্রতিটি জাতি তার সকল কাজগুলো যে নিয়মে সম্পন্ন করে থাকে, সেই নিয়মের নাম সংস্কৃতি।

২০. ঈমানরে মূল বষিয়কে ইসলামী পরভিাষায় কি বলা হয়?

উঃ- ঈমানরে মূল বষিয়কে ইসলামী পরভিাষায় তাওহীদ, রসিালাত ও আখরিাত বলা হয়।

২১. কালমো তাইয়্যবোর র্অথ ক?ি

উঃ- (ক) লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহ র্অথঃ- আমি শুধু আল্লাহ্‌র হুকুম মনেে চলব, তার হুকুমরে বরিোধী কারো হুকুম মানব না।

(খ) মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহ্ র্অথঃ- মুহাম্মদ(সাঃ) যে নয়িমে আল্লাহ্‌র হুকুম পালন করছেনে, আমি ঠকি সইে নয়িমইে পালন করব। অন্য কারো নকিট থকেে কোন নয়িম কবুল করব না।

২২. ঈমান কয়টি বষিয়রে উপর আনতে হয় এবং কি ক?ি

উঃ- ৭টি বষিয়রে উপর ঈমান আনতে হয়। যথাঃ- (১) আল্লাহ্‌ (২) তাঁর ফরেশেতাগন (৩) তাঁর কতিাবসমূহ (৪) তাঁর রাসুলগন (৫) আখরিাতরে দনি (৬) তাকদীর এর ভালো ও মন্দ আল্লাহ্‌র পক্ষ থকেইে হয় (৭) মৃত্যুর পর আবার জীবতি হওয়া।

২৩. ইবাদত শব্দরে র্অথ ক?ি ইবাদত কাকে বল?ে

উঃ- ইবাদত শব্দরে র্অথ দাসত্ব করা বা দাসরে কাজ। আল্লাহ্‌র গোলাম হসিাবে তাঁর হুকুম ও রাসুলরে তরীকামতো যা করা হয় সসেবই আল্লাহ্‌র দাসত্ব। শুধু নামায-রোজাই ইবাদত নয়। আল্লাহ্‌র হুকুমমতো করলে সব কাজই ইবাদত।

২৪. যাকাতরে খাত কয়ট?ি ৪টি খাতরে নাম উল্লখে করুন।

উঃ- যাকাতরে খাত ৮ট।ি (১) ফকীরঃ- যারা এত গরীব, অন্যরে কাছে হাত পাততে বাধ্য হয় তাদরে জন্য। (২) মসিকনিঃ- যারা অভাবী হলওে লজ্জায় কারো কাছে চায়না। (৩) সরকাররে যাকাত বভিাগরে র্কমচারীদরে বতেন দওেয়ার জন্য।(৪) আল্লাহ্‌র দীনকে বজিয়ী করার আন্দোলনে সাহায্য করার জন্য।

২৫. মদীনার ইসলামী রাষ্ট্র ধ্বংশরে জন্য কাফরিরা প্রথম কোন যুদ্ধে লপ্তি হয়? কোন যুদ্ধে একজন বশিষ্টি সাহাবী মুনাফকিরে নতো হন এবং তার নাম ক?ি

উঃ- বদর যুদ্ধ। উহুদরে যুদ্ধে একজন বশিষ্টি সাহাবী মুনাফকিরে নতো হন। তার নাম আব্দুল্লাহ বনি উবাই।

২৬. ভালো কাজরে আদশে এবং খারাপ কাজরে আদশে সর্ম্পকতি একটি হাদসি উল্লখে করুন।

উঃ- রাসুল (সাঃ) বলছেনে, “যে ব্যক্তি কোন মন্দ কাজ হতে দখেবে তার র্কতব্য হলো জোর করে তা বন্ধ করা। যার এ ক্ষমতা নইে, সে যনে কথা বলে তা বন্ধ কর।ে যার এ সাহসও নইে, সে যনে মনে মনে এ কাজরে বরিোধী হয়। এটুকু সবচয়েে র্দুবল ঈমানরে পরচিায়ক”।

2 thoughts on “প্রশ্নোত্তরঃ ইসলামের সহজ পরিচয়”

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s